বিশ্বনাথে অস্ত্রসহ ৪ ডাকাত গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৬:২৫ পূর্বাহ্ণ, মে ১২, ২০১৬

কামরুল হাসান ফাহিম বিশেষ প্রতিনিধিঃ
সিলেটের বিশ্বনাথ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র,দেশীয় অস্ত্র ও ডাকাতির সরঞ্জামসহ ৪ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে র্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র্যাব)-৯। বুধবার দিবাগত রাতে বিশ্বনাথের আরমাবাগ গ্রামে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে র্যাব-৯ এর উপ-পরিচালক মেজর ফখরুল ইসলামের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে ডাকাতদলকে গ্রেফতার করে র্যাব। এসময় ডাকাতদলের অন্যতম সদস্য দুলাল উরফে দোলন র্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। বুধবার সন্ধ্যায় র্যাব-৯ এর সদর দপ্তরে গ্রেফতারকৃত ডাকাতদলের সদস্যদেরকে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে র্যাব। সংবাদ সম্মেলনে বিফ্রিং করেন র্যাব-৯ এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল মাহবুব হাসান। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে ওসমানীনগর থানার মোবারকপুর গ্রামের মৃত নূর মিয়ার পুত্র তোফায়েল আহমেদ (২৭), খাদিমপুর গ্রামের মৃত আরফান উল্ল্যার পুত্র আহমেদ রাজা ওরফে তোরন মিয়া(৩০),তিলাপাড়া গ্রামের আব্দুল রশিদের ছয়বুর আহমেদ ওরফে সাব্বির (২৮) বিশ্বনাথ থানার জগদীশপুর গ্রামের মৃত মোখলেছ আলীর পুত্র মোঃ আশক আলী (৫৫)। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় গ্রেফতারকৃত আশক আলীর নামে সিলেটের বিশ্বনাথ থানায় ২টি ও সিলেট মেট্রোপলিটন জালালাবাদ থানায় ১টি ডাকাতির মামলা রয়েছে।এছাড়াও তার বিরুদ্ধে পুলিশ অ্যাসল্ট মামলাও রয়েছে। খোকন আহমেদ রাজা ওরফে তোরন মিয়ার বিরুদ্ধে সিলেটের গোলাপগঞ্জ থানায় হত্যা মামলাসহ ডাকাতি মামলা আছে। এছাড়াও ছয়বুর আহমেদ ওরফে সাব্বিরের বিরুদ্ধে সিলেটের বালাগঞ্জ থানায় ১টি ও ওসমানীনগর থানায় ২টি ডাকাতির মামলা রয়েছে।সংবাদ সম্মেলনে লে.কর্নেল মাহবুব হাসান জানান- গত বেশ কিছুদিন ধরে সিলেট জেলার বিভিন্ন এলাকায় সংঘবদ্ধ আন্তঃজেলা ডাকাত দল বিভিন্ন বাড়িতে ডাকাতি করে সর্বস্ব লুট করে নিয়ে যাচ্ছিল। এতে জনগণের মধ্যে আস্থা ও নিরাপত্তা ফিরিয়ে আনতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সহায়তা করতে র্যাব-৯ বিভিন্ন জায়গায় অভিযান ও গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি করে। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার রাতে ডাকাতদলের সদস্যদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি ওয়ান শুটারগান, ৪টি কার্তুজ, চাপাতি, গ্রিল কাটার, চাকু, শাবল উদ্ধার করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়-অভিযানকালে র্যাবের উপস্থিতি বুঝতে পেয়ে পেশাদার ডাকাত দলটির অন্যতম সদস্য দুলাল ওরফে দোলনসহ ২-৩ জন ডাকাত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। ঘটনার পর থেকে পলাতক আসামিদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছে র্যাব। র্যাব জানায় গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে খোকন আহমদ রাজা ওরফে তোরন মিয়া সম্প্রতি ওসমানীনগর থানায় ডাকাতি করতে গিয়ে গৃহকর্তা চিনে ফেলায় তাকে হত্যা করে। গ্রেফতারকৃতদেরকে সিলেটের বিশ্বনাথ থানায় হস্তান্তর ও মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে র্যাব-৯ এর লে.কর্নেল মাহবুব হাসান।