দিরাইয়ে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতীক বরাদ্ধ ৪৮ জন প্রার্থী মাঠে

প্রকাশিত: ১২:৪৮ অপরাহ্ণ, মে ১৩, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দিরাই উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে গতকাল শুক্রবার দুপুরে প্রতীক বরাদ্ধ পেয়ে প্রচারণায় মাঠে নেমেছেন ৪৮ চেয়ারম্যান প্রার্থী। আওয়ামীলীগ ও বিএনপি প্রধান দুইটি রাজনৈতিক দল বিদ্রোহী প্রার্থীদের থামাতে পারে নি। আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ১৭ জন ও বিএনপির ৬ জন বিদ্রোহী প্রার্থী প্রতীক বরাদ্ধ পেয়ে ব্যাপক মিছিল শো-ডাউন করেছে। রফিনগর ইউনিয়নে চেয়রম্যান পদে ৫ জন, অাওয়ামী লীগের রেজুয়ান হোসেন খান(নৌকা), বিএনপি’র আনিসুর রহমান আনিস( ধানের শীষ), আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জাহাঙ্গীর চৌধুরী(আনারস),মহসিন রেজা(ঘোড়া),আল মামুন(মোটর সাইকেল)। ভাটিপাড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৫ জন, বিএনপি’র আফজাল হোসেন( ধানের শীষ),আওয়ামীলীগের জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী (নৌকা),আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শাহজাহান কাজী(মোটর সাইকেল),আলমগীর বখত(আনারস) ও স্বতন্ত্র বেলাল আহমদ(ঘোড়া)। রাজানগর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৬ জন,বিএনপি’র জুনায়েদ মিয়া (ধানের শীষ),আওয়ামী লীগের সৌম্য চৌধুরী(নৌকা) ও স্বতন্ত্র জহিরুল ইসলাম জুয়েল(চশমা),আবদুল হক তালুকদার(আনারস),নওশেরান চৌধুরী(ঘোড়া),ও রুনু মিয়া সরদার(মোটর সাইকেল)। চরনারচর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৪ জন আওয়ামীলীগের পরিতোষ রায়(নৌকা),বিএনপি’র রতন কুমার দাস(ধানের শীষ), আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী পরেশ লাল দাস(আনারস) ও বিএনপির বিদ্রোহী শাহীন সুলতান তালুকদার শাহজাহান(ঘোড়া)। সরমঙ্গল ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৫ জন,বিএনপি থেকে মোয়াজ্জেম হোসেন জুয়েল(ধানের শীষ),আওয়ামীলীগ থেকে কানু লাল দাস(নৌকা) ও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মহানন্দ দাস(ঘোড়া), বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী এহছান চৌধুরী(আনারস), জাসদের কৃষ্ণকান্ত রায়(মশাল)। করিমপুর ইউনিয়নে ৩ জন আওয়ামীলীগের উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আছাব উদ্দিন সরদার(নৌকা),আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি শাহজাহান সরদার(আনারস)। বিএনপির আব্দুর রহিম মাষ্টার (ধানের শীষ)। জগদল ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৫ জন বিএনপির’র কামরুল ইসলাম(ধানের শীষ),আওয়ামী লীগের হুমায়ুন রশিদ লাভলু(নৌকা) ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শিবলী বেগ(আনারস), জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের কেএম তোফায়েল আহমদ (খেজুর গাছ) ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ’র সোলামান হাসান(হাতপাখা)। তাড়ল ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৮ জন,আওয়ামীলীগ থেকে আহমদ চৌধুরী (নৌকা),আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আকিকুর রেজা পুলিশ(মোটর সাইকেল),রুহুল আমিন(ঘোড়া), ধ্রুপদ চৌধুরী নুপুর(আনারস),বিএনপি’র আলী আহমদ (ধানের শীষ),বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী নুরুল হক তালুকদার(চশমা),স্বতন্ত্র আব্দুল কুদ্দুস(টেলিফোন), জমিয়তের গিয়াস উদ্দিন(খেজুর)। কুলঞ্জ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৭ জন,আওয়ামীলীগের মিলন মিয়া(নৌকা),আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল আহাদ(ঘোড়া),পবিত্র মোহন দাস(টেলিফোন),একরার হোসেন(মোটর সাইকেল),কাওসার গাজী চৌধুরী (চশমা) বিএনপি’র মুজিবুর রহমান(ধানের শীষ)ও বিএনপির বিদ্রোহী মিজবাউজ্জামান চৌধুরী(আনারস) প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে যাচ্ছেন।