পাঁচ লাখ মানুষকে সরিয়ে নিরাপত্তা স্থানে রাখা হয়েছে

প্রকাশিত: ৫:৩৩ অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০১৬

ডেস্ক নিউজঃ
বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু কারণে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে উপকূলীয় ১৪টি জেলার পাঁচ লাখ মানুষকে সাড়ে তিন হাজার আশ্রয় কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। আরও ২-৩ লাখ মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হবে। শনিবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় সরকারের ‘সব’ প্রস্তুতি রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, যারা আশ্রয় কেন্দ্রের কাছাকাছি রয়েছেন, তারা স্বাভাবিকভাবেই দেরিতে কেন্দ্রে যান। ত্রাণ তৎপরতার প্রস্তুতি হিসেবে এসব জেলায় চার লাখ করে টাকা এবং দুই হাজার টন করে চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিদেশ থেকে এসে আমাদের প্রস্তুতির বিষয়ে খোঁজ নিয়েছেন। তিনি আমাদের প্রস্তুতিতে সন্তুষ্ট। আমরা এই ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় সম্ভাব্য সব প্রস্তুতি নিয়েছি। মায়া জানান, ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কমিটির (সিপিপি) ৫৫ হাজার স্বেচ্ছাসেবক ছাড়াও রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, রোভার স্কাউট ও আনসার ভিডিপির কর্মী, স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মী মিলিয়ে এক লাখ স্বেচ্ছাসেবীকে উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে।