উদ্বোধনের ১৯ মাস পরেও শুরু হয়নি দিরাই ফায়ার স্টেশনের কার্যক্রম

প্রকাশিত: ১০:৩৪ অপরাহ্ণ, জুন ১১, ২০২০

মুজাহিদুল ইসলাম সর্দার::
দিরাই ফায়ার স্টেশন দীর্ঘ ১৯ মাস আগে উদ্বোধন হলেও আজ অবধি ভবনটিতে কার্যক্রম শুরু হয়নি। ঠিক কবে ভবনটিতে কার্যক্রম শুরু হবে তা কেউই ঠিকভাবে বলতে পারছেন না। দিরাই পৌর শহরের দিরাই-মদনপুর সড়কের পাশে সরকারের কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণকৃত ভবনটি দেখে আশার আলো জ্বলেছিল হাওর পাড়ের মানুষের মনে। অগ্নি নির্বাপন স্টেশন হিসেবে কার্যক্রম শুরু করবে অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় ছিলেন এলাকাবাসী। স্টেশনটিতে কার্যক্রম শুরু না হলেও অগ্নিকান্ড তো এরজন্য থেমে নেই। হাওরের জনপদ দিরাই অঞ্চলে বারবার অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটলেও তা সনাতন পদ্ধতিতেই নিয়ন্ত্রণ করতে হয় স্থানীয়দের। আর ততক্ষণে সবই পুড়ে ছাই হয়ে যায়। বাড়ে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ। সম্প্রতি উপজেলার সুরিয়ারপাড়ে গ্রামে আগুনে ১১ টি গবাদিপশুর মৃত্যু হয়, জকিনগর গ্রামে দোকান ঘর আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এছাড়াও গতকাল বুধবার দুপুরে দিরাই পৌর শহরের মধ্য বাজারে এক ব্যবসায়ীর গুদামে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটলে স্থানীয়দের ঘণ্টাব্যাপী চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। অল্পের জন্য বড় ধরনের ক্ষতি থেকে রক্ষা পান স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। এলাকাবাসীর দাবী,দিরাই স্টেশনটি চালু হলে এতো ক্ষতির সম্মুখীন হওয়া লাগতো না তাদের। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গণপূর্ত মন্ত্রণালয় এর অধীনে ১ কোটি ৭০ লাখ টাকা ব্যয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনটি ২০১৬ সালে নির্মাণ কাজ শুরু হয়। পরে ২০১৮ সালের শেষের দিকে তা শেষ হয়। এরপর ২০১৮ সালের ১ নভেম্বর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভবনটিসহ সুনামগঞ্জ জেলার কয়েকটি ফায়ার স্টেশনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জেলার অন্যান্য স্টেশন গুলোর কার্যক্রম শুরু হলেও উদ্বোধনের ১৯ মাস গত হওয়া দিরাইয়ের জনগুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানটি আজো চালু হয়নি। অগ্নিকান্ড সহ বিভিন্ন ধরনের দুর্যোগে দিরাই উপজেলাবাসীকে প্রায় ৩৫ কিলোমিটার দূরের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের উপর নির্ভর করতে হয়। অনেক সময় দেখা যায় অগ্নিকান্ডের ঘটনায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থেকে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ঘটনাস্থলে আসতে আসতে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন স্থানীয়রা। সুনামগঞ্জ জেলা গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আল আমিন বলেন, কিছু কাজ বাকি থাকায় ফায়ার সার্ভিসটি চালু করতে দেরি হচ্ছে। বাকি কাজগুলো শেষ হলেই ফায়ার সার্ভিসটি চালু হবে। দীর্ঘ ১৯ মাস আগে ভবনটি উদ্বোধন করা হয়েছে এখন পর্যন্ত কার্যক্রম চালু না হওয়ার কারণ জিঙ্গাসা করলে তিনি বলেন, আমি জেলায় নতুন এসেছি উদ্বোধন হওয়ার বিষয়টি আমার জানা নেই।