মধ্যনগরে ত্রাণ বিতরনসহ মন্দিরের সেবাইত পুজারীদের সাথে মত বিনিময় করলেন এমপি শামীমা শাহরিয়ার

প্রকাশিত: ১:৪৪ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৫, ২০২০

আল-হেলাল সুনামগঞ্জ:
সিলেট-সুনামগঞ্জ সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেত্রী এডভোকেট শামীমা শাহরিয়ার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ হাওরবাসীর পূণর্বাসনে সরকারের সাথে সমাজের সকল সুহৃদয়বান ব্যক্তিদেরকেও এগিয়ে আসার উদাত্ত আহবাণ জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে লেখা স্বরচিত কবিতার উদ্ধৃত্তি দিয়ে তিনি বলেন, প্রতিটি প্রাকৃতিক দুর্যোগে,আঁধার কেটে আসবে আলো,দুঃখ দিন থাকবে না। সৃষ্টিকর্তার আশীষ নিয়ে পাশে আছেন শেখ হাসিনা। তাই শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় থাকতে বন্যার্ত মা ভাই বোনদের হতাশার কোন কারন নেই। নেত্রীর নির্দেশে প্রশাসন,জনপ্রতিনিধি ও দলীয় নেতাকর্মীরা আমরা সবাই আপনাদের পাশে আছি এবং সবসময় পাশে থাকবো। শনিবার দুপুরে সুনামগঞ্জ ১ নির্বাচনী এলাকার ধর্মপাশা উপজেলার মধ্যনগর থানার কয়েকটি বন্যাকবলিত গ্রামে ত্রানসামগ্রী প্রদানকালে এসব কথা বলেন তিনি। এসময় মধ্যনগর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি গিয়াস উদ্দিন নুরী, সহ সভাপতি প্রবির বিজয় তালুকদার,সাধারন সম্পাদক পরিতোষ সরকার,যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শামীম আহমদ,যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক রিপন সরকার, সহ প্রচার সম্পাদক গোপাল সরকার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য কামীনি সরকার,বানু গুপ্ত,কৃষকলীগ নেতা সফিকুল ইসলাম,উপজেলা যুবলীগের প্রচার সম্পাদক আজিম শেখ সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ত্রাণ বিতরন শেষে এমপি এডভোকেট শামীমা শাহরিয়ার মধ্যনগর বাজার জগন্নাথ জিউর আখড়ার সেবাইত,পুরোহিত পুজারীসহ মন্দির কমিটির নেতাকর্মীদের সাথে কুশল বিনিময় করেন। শামীমা শাহরিয়ার বলেন,করোনার মতো জাতীয় দুর্যোগে জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মসজিদ মাদ্রাসাসহ সম্মানিত ইমাম মুয়াযযিন থেকে শুরু করে সমাজের সকল শ্রেণিপেশার মানুষকে খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন। এখন মন্দিরের পুরোহিত সেবাইত পুজারীরাও পরিবার ও প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা পাবেন। শেখ হাসিনার সরকার ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন ও ধর্মীয় অনুশাসন কায়েমকারীদের সম্মান প্রদর্শনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
উল্লেখ্য সুনামগঞ্জের মধ্যনগর থানা একটি পশ্চাৎপদ জনপদের নাম। মোট ৪টি ইউনিয়ন সমন্বয়ে গঠিত এই থানাটিকে একটি পূর্ণাঙ্গ উপজেলায় উন্নীত করনের দাবী দীর্ঘদিনের। অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে শুস্ক মৌসুমেও নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও উর্ধতন আমলারা এই জনপদে যেতে আগ্রহ প্রকাশ করেননা। কিন্তু সাংসদ শামীমা শাহরিয়ার চলতি বন্যা দুর্যোগে ভানবাসীদের কে দেখতে সরজমিনে সেখানে অবস্থান করায় স্থানীয় লোকজনের একটি ভরসাস্থলে পরিণত হয়েছেন। উপস্থিত হতদরিদ্র নারীপুরুষদেরকে তার প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে দেখা গেছে।