দিরাইয়ে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ: কোষাগারে জমার নির্দেশ

প্রকাশিত: ১০:৩৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৮, ২০২০

সর্দার মুজাহিদুল ইসলাম:: 

দিরাইয়ে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ করেছেন প্রকল্প সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান রেজুয়ান খান। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানাযায়, দিরাই উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের বাংলাবাজার সংলগ্ন প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের প্রথম বরাদ্দ ১ কোটি ৫৬ লক্ষ ৮৯ হাজার ৫০৪ টাকা, এর মধ্যে ৭৮ লক্ষ ৪৪ হাজার ৭৫২ টাকা প্রথম ধাপে উত্তোলন করেন প্রকল্প সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান রেজুয়ান খান। প্রকল্পের মাটির কাজের মেয়াদ উত্তীর্ণ হলেও নির্ধারিত সময়ে তিনি ৩৩ লক্ষ ৮২ হাজার ৯৭০ টাকার মাটির কাজ সম্পন্ন করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে বার বার তাগিদ দেওয়া সত্ত্বেও প্রকল্প সভাপতি কাজ সম্পূর্ণ করতে ব্যার্থ হন এবং অবশিষ্ট টাকা আত্মসাৎ করেন। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় প্রকল্পের শুরুতে প্রকল্পের স্থান নির্ধারণ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে দ্বন্দ্ব দেখা দেয়। পরে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মধ্যস্থতায় দ্বন্দ্বের নিষ্পত্তি হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সফি উল্লাহ বলেন উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প কাজ সম্পন্ন করতে বার বার তাগিদ দেওয়ার পরও প্রকল্পের মাটির কাজ সম্পন্ন না করায়, প্রকল্পের সভাপতি পরিবর্তনের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করা হয়েছে এবং আগামী ৯ আগস্ট ২০২০ এর মধ্যে প্রকল্প সভাপতি কে উত্তোলনকৃত অবশিষ্ট টাকা সরকারি কোষাগারে জমা প্রদানের জন্য বলা হয়েছে। টাকা জমা প্রদানে ব্যর্থ হলে নীতিমালা (অনুচ্ছেদ নং-১৬) মোতাবেক দ্বিগুন, ৮৯ লক্ষ ২৩ হাজার, ৫৬২ টাকা ৯০ দিনের মধ্যে সরকারি কোষাগারে জমা প্রদান করতে হবে বলে প্রকল্প সভাপতি কে নোটিশ প্রদান করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান রেজুয়ান খানের মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি কোন সদোত্তর দিতে পারেননি।