ছাত্রদল

মুক্তিযুদ্ধে ছাত্রদলের সবচেয়ে বেশি অবদান রয়েছে! দিরাইয়ের ছাত্রদল নেতা

প্রকাশিত: ১২:৫৭ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০২০

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
মুক্তিযুদ্ধে ছাত্রদলের সবচেয়ে বেশি অবদান রয়েছে বলে দাবি করেছেন সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক, দিরাই ছাত্রদল নেতা তানভীর চৌধুরী। গত শনিবার সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা ছাত্রদলের ‘প্রাথমিক তথ্য সংগ্রহ, ফরম বিতরণ ও জমা প্রদান’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ দাবি করেছেন। অনুষ্ঠানে বক্তব্যের এক পর্যায়ে জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক তানভীর চৌধুরী বলেন,”১৯৭১ সালে যে মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে সেখানে সবচেয়ে বেশি অবদান বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের”।

তানভীরের এমন বক্তব্য শুনে অবাক হন উপস্থিত ছাত্রদলের নেতাকর্মী। সে কিভাবে ছাত্রদলের গুরুত্বপূর্ণ পদ পেলো সেই প্রশ্ন তোলেন অনেকে।

ছাত্রদলের নেতারা জানান, ১৯৭৯ সালের ১ জানুয়ারি ছাত্রদল প্রতিষ্ঠা করেন জিয়াউর রহমান। তাই ১৯৭১ সালের যুদ্ধে ছাত্রদলের সংগঠন হিসেবে অবদান রাখার সুযোগ নেই। অজ্ঞতার কারণে জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক তানভীর এমন বক্তব্য দিয়েছেন।

এদিকে তানভীরের এমন আজব বক্তব্যে সমালোচনার ঝড় বইছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। ছাত্রদলের নেতাকর্মী প্রশ্ন তুলছেন তানভীর কোন যোগ্যতায় ছাত্রদলের এতও বড় নেতা হলো।

কে এই তানভীরঃ ছাত্রদল সূত্রে জানা গেছে, তানভীর চৌধুরীর বাড়ি দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়ায়। সে কখনও ছাত্রদল বা বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিল না। চলতি বছর হঠাৎ করেন সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক পদ পায় সে। মুলত আলী আকবর নামে তানভীরের এক আত্নীয় বিভিন্ন জায়গায় লবিং করে এই পদ পাইয়ে দিয়েছেন তাকে।

দিরাই উপজেলা ও কলেজ ছাত্রদলের একাধিক নেতা জানান, তানভীরকে কখন দলীয় কর্মসূচিতে দেখা যায়নি। তাকে কেউ চিনেও না। দলে তার কোনও পদও ছিল না। এক লাফে সে জেলার বড় নেতা হয়ে গেছে।

পৌর ছাত্রদলের এক নেতা বলেন, কেন্দ্রীয় নেতারা তানভীরকে জেলার যুগ্ম আহবায়ক ও তাহিরপুর উপজেলা সাংগঠনিক টিমের প্রধান করেছে। সে অতীতে কোনও পদে ছিল না। তার অভিজ্ঞতা নেই, দলে ত্যাগ নেই। কেন্দ্রীয় কমিটির কয়েকজন তাকে কিসের বিনিময়ে পদ দিয়েছেন তা আমাদের বোধগম্য নয়।

ভাটিপাড়া ইউনিয়ন ছাত্রদলের সদ্য সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক সজীব আহমেদ বলেন, তানভীর এলাকার কখনই ছাত্রদলের সঙ্গে জড়িত জড়িত ছিল না। তাকে কারা কিভাবে সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়কের মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দিয়েছেন আমরা তা জানি না। তার এই ধরণের বক্তব্য শুনে অনেকেই আমাদের কাছে জানতে চেয়েছে কিভাবে একজন আনকোড়া লোককে এই গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। আজ আমরা লজ্জিত।

ছাত্রদলের এই দুই নেতা আরও বলেন, আমাদের প্রশ্ন কারা কিভাবে তানভীর কে একটি বৃহৎ ছাত্র সংগঠনের জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়কের মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দিয়েছেন। তাদের খুঁজে বের করা দরকার। তার এই ধরণের বক্তব্য আমাদের ঐতিহ্যবাহী ছাত্রদলের সুনাম নষ্ট করেছে। তাই আমাদের দাবি অবিলম্বে তানভীর চৌধুরীকে এই গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে যোগ্যদের পুনর্বাসিত করে ছাত্রদলের সুনাম ফিরিয়ে আনা হোক।