,

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ও এক হতে পারলোনা সুনামগঞ্জ জেলা যুবদল

নিজস্ব প্রতিবেদক::
যুবদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির চেয়ারপার্সন সাবেক হুইপ অ্যাডভোকেট ফজলুল হক আসপিয়ার অনুসারি হিসেবে পরিচিত সুনামগঞ্জে জেলা যুবদলের সভাপতি ও জেলা বিএনপির সহসভাপতি আবুল মনসুর মো. শওকতের নেতৃত্বে শহেরর কাজির পয়েন্টে এবং জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নুরুলের অনুসারি হিসেবে পরিচিত জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মামুনুর রশিদ কয়েছ ও জেলা যুবদলের সহসভাপতি এবং দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক, পাথারিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আমিনুর রশিদ আমিনের নেতৃত্বে শহরের পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এ বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়।

রোববার সাড়ে ১১টার দিকে জেলা যুবদলের উদ্যোগে শহরের আলাদা আলকদা কর্মসূচি পালন করা হয়।

কয়েছ আমিনের নেতৃত্বর শহরের পুরাতন বাসস্টেশন থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে এবং আবুল মনসুর মো শওকতের নেতৃত্বে কাজির পয়েন্ট থেকে শহরের ট্রাফিক পয়েন্টের দিকে যেতে চাইলে পুলিশ বাধাঁর মুখে পড়ে। পরে কয়েছ আমিন গ্রুপ জামাই পাড়া সড়কের সম্মুখে এবং শওকত গ্রুপ কাজির পয়েন্ট লতিফা কমিউনিটি সেন্টারের উঠানে প্রতিবাদ সমাবেশ করে।

জেলা যুবদলের সভাপতি আবুল মনসুর মো শওকতের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি নাদের আহমদ, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লা আল নোমান, জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সাধারণ সম্পাদক একে সোহাগ এবং বিভিন্ন ইউনিট থেকে আগত যুবদল নেতৃবৃন্দ।

সুনামগঞ্জ জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মামুনুর রশিদ কয়েছ’র সভাপতিত্বে ও জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল হাসান রাজুর পরিচালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সিনিয়র সহসভাপতি আমিনুর রশিদ, আমানুল হক রাসেল, শামসুদ্দোহা, অ্যাডভোকেট নাজিম কয়েস, অলিউর রহমান অলি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন, মমিনুল হক কালারচাঁন প্রমুখ।

এ সময় সমাবেশে বক্তারা বলেন, এই প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে আমাদেরকে শপথ নিতে হবে, এই দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে না আনা পর্যন্ত, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত না করা পর্যন্ত আমরা রাজপথে থাকব। আজকে প্রতিষ্ঠাবাষির্কীর দিনে আমাদের কেক কেটে আনন্দ করার কিন্তু আমরা বর্তমানে রাজপথে আন্দোলন করছি। আর আমাদের শান্তি পূর্ণ আন্দোলনে পুলিশ বাধা দিচ্ছে। এই স্বৈরাচারী সরকারের পতন ঘটানো না গেলে দেশের মানুষ শান্তিতে বসবাস করতে পারবে না। অচিরেই যুব আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের পতন ঘটানো হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর