,

ব্রিটিশ নির্বাচনে পাঁচ সিলেটি নারী

কালনী ভিউ ডেস্ক::

যুক্তরাজ্য জুড়ে বইছে পার্লামেন্ট নির্বাচনের হাওয়া। আর এই নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে আলোচনায় উঠে এসেছে বাংলাদেশের পাঁচ প্রবাসী নারী। আর দেশে তাদের পাঁচজনেরই আদি বাড়ি সিলেট।

আলোচিত এই পাঁচ প্রার্থী হলেন- রুশনারা আলী, আফসানা বেগম, ডা. আনোয়ারা আলী, রাবিনা খান ও বাবলিন মল্লিক। যুক্তরাজ্যে লেবার পার্টি, কনজারভেটিভ পার্টি ও লিব ডেম দল থেকে প্রার্থী হচ্ছেন তারা। নির্বাচনের চূড়ান্ত ডামাডোল শুরু হলে সিলেটি বংশোদ্ভূত প্রার্থীদের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

যুক্তরাজ্যে ২০১৭ সালের ৮ জুন সর্বশেষ সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এবারের পার্লামেন্ট নির্বাচন হবে আগামী ১২ ডিসেম্বর।

রুশনারা আলী

বর্তমানে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে আছেন সিলেটি বংশোদ্ভূত এমপি রুশনারা আলী। এবারও লেবার পার্টি থেকে তিনি প্রার্থী হচ্ছেন, এটা নিশ্চিত হয়ে গেছে।

রুশনারা আলী সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ভুরকি গ্রামের বাসিন্দা। লেবার পার্টি থেকে পূর্ব লন্ডনের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসন থেকে টানা তিনবার এমপি পদে বিজয়ী হয়েছেন। রুশনারাই প্রথম বাংলাদেশি, যিনি যুক্তরাজ্যের হাউস অব কমন্সে এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন।

প্রথমবার ২০১০ সালে, দ্বিতীয়বার ২০১৫ সালে এবং সর্বশেষ ২০১৭ সালে মধ্যবর্তী নির্বাচনে বিজয়ী হন রুশনারা। তিনি সংসদে লেবার পার্টির শ্যাডো শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেন। রুশনারার আসনটি বাংলাদেশি অধ্যুষিত হওয়ায় এবারও বিজয় নিয়ে তিনি প্রবল আশাবাদী।

ডা. আনোয়ারা আলী

আগামী নির্বাচনে বর্তমানে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টি থেকে প্রার্থী হচ্ছেন ডা. আনোয়ারা আলী। তার গ্রামের বাড়ি সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের সুনামপুরে।

২০১৫ সালে তিনি তার দল থেকে টাওয়ার হ্যামলেটসে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তবে এবার আর মেয়র পদে নয়, এমপি পদে একই দল থেকে প্রার্থী হচ্ছেন আনোয়ারা। তার আসন লন্ডনের হ্যারো ওয়েস্ট। এ আসনটি কনজারভেটিভ দলের ‘ভোটব্যাংক’ হিসেবে পরিচিত। ফলে তিনিও জয় নিয়ে আশাবাদী।

প্রসঙ্গত, আনোয়ারা আলী প্রথম কোনো বাঙালি এবং নারী, যিনি কনজারভেটিভ পার্টি থেকে মেয়র পদে নির্বাচন করেছেন। যুক্তরাজ্যে চিকিৎসাসেবায় অসামান্য অবদান রাখায় তিনি ‘মেম্বার অব দ্য অর্ডার অব ব্রিটিশ অ্যাম্পায়ার’সম্মাননাও পেয়েছেন।

আফসানা বেগম

পূর্ব লন্ডনের পপলার-লাইম হাউস আসনে এবার লেবার পার্টি থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন আফসানা বেগম। তার পৈত্রিক বাড়ি সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের লুদরপুর গ্রামে। আফসানাকে এই নির্বাচনে প্রার্থী হতে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে। গত রোববার লেবার পার্টির সদস্যদের ভোটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে তিনি এমপি পদে চূড়ান্ত মনোনয়ন পান। আফসানা পান ২৮১ ভোট। তার প্রতিদ্বন্দ্বি সোমালিয়া বংশোদ্ভূত আমিনা আলী পেয়েছিলেন ২২৩ ভোট।

লেবার পার্টির টাওয়ার হ্যামলেটস শাখার ভাইস চেয়ারম্যান আফসানা বেগম। তিনি দলটির লন্ডন রিজিয়নের সদস্য। এ পদে তিনিই প্রথম বাঙালি বংশোদ্ভূত।

ড. বাবলিন মল্লিক

তিনি লড়ছেন ব্রিটেনের লিব ডেম নামের রাজনৈতিক দল থেকে। তিনি প্রার্থী হয়েছেন যুক্তরাজ্যের কার্ডিফ সেন্ট্রাল আসনে। ড. বাবলিন মল্লিক মৌলভীবাজার সদর উপজেলার কচুয়া গ্রামের মোহাম্মদ ফিরোজের মেয়ে। বাবা-মায়ের সাথে ছোটবেলা থেকেই যুক্তরাজ্যে বসবাস করে আসছেন তিনি।

যুক্তরাজ্যে কাউন্টি কাউন্সিলে প্রথম বাঙালি ও মুসলিম নারী হিসেবে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিলেন বাবলিন মল্লিক।

রাবিনা খান

আগামী নির্বাচনে লিব ডেম পার্টি থেকে আরেক সিলেটি বংশোদ্ভূত নারী রাবিনা খান এমপি পদে লড়বেন। তিনি লন্ডনের কেনজিংটন অ্যান্ড চেলসি আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিবতা করবেন। তার পৈত্রিক বাড়ি সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলায়। রাবিনা খান বর্তমানে টাওয়ার হ্যামলেটসের শ্যাডওয়েলের কাউন্সিলর। সর্বশেষ টাওয়ার হ্যামলেটস নির্বাচনে তিনি মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন।

এই পাঁচ সিলেটি প্রার্থী ছাড়াও আরো অন্তত দুজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আছেন, যারা আগামী নির্বাচনে এমপি পদে লড়বেন। তারা হলেন- টিউলিপ রিজওয়ানা সিদ্দিক ও রূপা আশা হক। তারা দুজনই বর্তমানে লেবার পার্টির এমপি।

টিউলিপ বঙ্গবন্ধুকন্যা ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বোন ও শেখ রেহানার মেয়ে। তিনি ২০১৫ সালের নির্বাচন থেকে লন্ডনের হ্যামস্টেড ও কিলবান আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হয়ে আসছেন।

আর লন্ডনের ইলং সেন্ট্রাল ও অ্যাকটন আসন থেকে ২০১৫ সালে প্রথমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হন রূপা হক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর