,

কুলঞ্জে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে অসহায় মানুষের বাড়িতে শিক্ষকরা

বিশেষ সংবাদদাতা::
বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস মহামারী রূপ ধারণ করায় বাংলাদেশে এ ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সতর্কতামূলক পদক্ষেপের অংশ হিসেবে গত ২৬ মার্চ হতে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত দেশের সকল সরকারি-বেসরকারি অফিস-আদালত, ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান, গণপরিবহন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

এতে গরিব, দিনমজুর, নিম্ন আয়ের শ্রমজীবী মানুষ কর্মহীন হয়ে পরিবারের ভরন-পোষণ যোগাতে পারছে না। এ ধরনের মানুষের সাহায্যার্থে বৃহস্পতিবার (০৯ এপ্রিল) সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের উদ্যোগ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণের করা হয়েছে।
২৫০ টি পরিবারের মধ্যে পরিবার প্রতি ৫ কেজি চাল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি লবন,১টি সাবান, ১কেজি ডাল, ১কেজি তৈল, সম্বলিত প্যাকেট বিতরণ করা হয়েছে।

দিরাই উপজেলার মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষা অফিসার তাপস কুমার রায় উপস্থিত হয়ে অসহায় পরিবারের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন।

তাপস কুমার রায় বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে উপার্জন বন্ধ থাকায় অসহায় হয়ে পড়া পরিবারের কাছে কুলঞ্জ ইউনিয়ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং অত্র এলাকার প্রবাসী পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। অত্র ইউনিয়নের প্রায় দুইশত দরিদ্র পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হবে।
উপজেলা মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষা অফিসার উপজেলার সকল ইউনিয়নের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদেরকে এ কার্যক্রম চলমান রাখার জন্য অনুরোধ করেন।

ত্রান বিতরনে আরও উপস্থিত ছিলেনঃ রাড়ইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জসিম উদ্দিন, রাধানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফুল মিয়া, জারলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মজিদ, নাচনী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সারোয়ার হোসেন ইমন, বরইতিয়র সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জালাল উদ্দীন, তেতৈয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আমিনুর ইসলাম, সমাজ সেবক আলাউর রহমান, শাহিন মিয়া, প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *