রায় ঘোষণার আগে এজলাসে মজনু আমি না ৪ জন ধর্ষণ করেছে, তাদেরকে ধরেন

প্রকাশিত: ৫:২৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০২০

কালনী ভিউ ডেস্ক::
মিলন, দুলাল, ইয়াছিন, আলামিন- এই চারজন ধর্ষণ করেছে। তাদেরকে ধরেন।’ বৃহস্পতিবার ঢাবি শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলার আসামি মজনুকে আদালতের এলজাসে ওঠানোর পর এসব কথা বলেন তিনি।

মামলার রায় ঘোষণার জন্য কঠোর পুলিশ পাহারায় তাকে আদালতে তোলা হয়। এসময় মজনু আরো বলেন, ‘ভাই আমাকে ছেড়ে দেন। আমি এতিম, অসহায়। আমারে মারলে আল্লাহ অনেক শাস্তি দিবেন।’

মজনু বলেন,‘আমাকে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে। আমি নির্দোষ। আমারে ছেড়ে দেন। আমি বাড়ি যামু গা, আমি আর থাকব না। আমি রিকশা চালাই, ভ্যান চালাই। আমি দুর্বল মানুষ। আমারে বিনাদোষে ধরে এনেছে। আল্লাহ বিচার করব রে। আমার নাম মজনু। আমি পাগল মজনু। আমারে এক বছর বিনাদোষে আটকে রেখেছে।’

ছেড়ে দেয়ার আকুতি জানিয়ে মজনু বলেন, ‘আজকে ছেড়ে দেন। আমারে অনেক অত্যাচার করেছে। আমার পক্ষে কেউ নাই। আমারে ছাইড়া দেন। আমি ব্রিজ থেকে লাফ দেব।’

পুলিশকে হুমকি দিয়ে মজনু বলেন, ‘আমার চোখের পানি শুকিয়ে গেছে। আমি ধর্ষণকারী না। আমারে তাড়াতাড়ি ছাইড়া দেন। নাহলে অবস্থা খারাপ হবে। হাতের হ্যান্ডকাফ একবার খুলে দে। কত পুলিশ আছে দেখে নেব।’

প্রসঙ্গত, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্রীর ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত একমাত্র আসামি মজনুকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ৩টায় ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম মোসাম্মৎ কামরুন্নাহার এ রায় ঘোষণা করেন।