দফায় দফায় রকেট হামলায় কেঁপে উঠল কাবুল

প্রকাশিত: ৪:৪২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৩, ২০২০

কালনী ভিউ ডেস্ক::
কাবুলে হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত একটি গাড়ি
দফায় দফায় রকেট হামলায় কেঁপে উঠল আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল। স্থানীয় সময় শনিবার সকালের এই ঘটনায় কমপক্ষে আট বেসামরিক নাগরিক নিহত এবং আরও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির সুরক্ষিত গ্রিন জোনে কমপক্ষে ২৩টি রকেট নিক্ষেপ করে ওই হামলা চালানো হয়েছে। সংবাদসূত্র : রয়টার্স, আল-জাজিরা ওই অঞ্চলে বিভিন্ন বিদেশি দূতাবাস এবং ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান অবস্থিত। ডজনখানেক আন্তর্জাতিক কোম্পানি এবং তাদের কর্মীদের বসবাসও গ্রিন জোনে। তাই ওই এলাকায় বেশ কড়া নিরাপত্তা থাকে। এরপরও গত কয়েক মাসে গ্রিন জোন ও এর আশপাশে কয়েক দফা হামলার ঘটনা ঘটেছে। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, ‘সন্ত্রাসীরা এসব হামলা চালিয়েছে। একটি ছোট ট্রাক থেকে এসব রকেট নিক্ষেপ করা হয়েছে।’ কীভাবে ট্রাকটি শহরের ভেতরে প্রবেশ করল, সে বিষয়টি খুঁজে বের করতে অনুসন্ধান চালানো হচ্ছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, ‘হামলায় আট বেসামরিক নিহত হওয়া ছাড়াও আরও ৩১ জন আহত হয়েছেন।’ কাবুল পুলিশের মুখপাত্র ফেরদৌস ফারামার্জও হতাহতের সংখ্যা একই বলে নিশ্চিত করেছেন। এদিকে, বেশ কয়েকজন স্থানীয় বাসিন্দা হামলার কিছু ছবি সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করেছেন। ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন ছবিতে ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ি এবং ভবনে বড় গর্ত দেখা গেছে। তবে হামলার দায় স্বীকার করেনি কোনো গোষ্ঠী। এমনকি তালেবানও এই হামলার দায় প্রত্যাখ্যান করেছে। তালেবানের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, জনসমাগম হয়, এমন স্থানে তারা অন্ধভাবে হামলা চালায় না। সম্প্রতি উপসাগরীয় দেশ কাতারে তালেবানের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আফগান সরকার ও মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। এর আগেই দেশটিতে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল। তালেবানের ভয়াবহ হামলায় ২৫ সেনা সদস্য নিহত এদিকে, তালেবান গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটির ৩৪ প্রদেশের মধ্যে ২৩টিতে হামলা ও অন্যান্য ‘নাশকতামূলক তৎপরতা’ চালিয়েছে বলে আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। এর মধ্যে বাদাখশান প্রদেশে চালানো সবচেয়ে বড় হামলায় আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর অন্তত ২৫ সদস্য নিহত হয়েছেন। উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় বাদাখশান প্রদেশের মাইমে জেলায় ওই হামলা পরিচালনাকারী ব্যক্তিদের মধ্যে কয়েকজন বিদেশিও রয়েছে। বাদাখশান প্রদেশের এমপি হুজ্জাতুলস্নাহ খেরাদমান্দ দাবি করেছেন, সীমান্তবর্তী এলাকায় বহু বিদেশি সন্ত্রাসী তৎপরতা চালাচ্ছে। তিনি বলেন, ‘শুক্রবার মাইমে জেলায় তালেবানের হামলায় বিদেশি জঙ্গিরা বড় ধরনের পৃষ্ঠপোষকতা দিয়েছে।’ তালেবান মুখপাত্র জবিউলস্নাহ মুজাহিদ এই হামলার দায়িত্ব স্বীকার করে দাবি করেছেন।