লন্ডন ০১:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শাল্লায় স্রোতে ভেসে যাওয়া মায়ের পর মিলল মেয়ের লাশ, এখনও নিখোঁজ ছেলে

সুনামগঞ্জের শাল্লায় গত ১৯ জুন নদীর স্রোতে ভেসে যাওয়া দুই শিশু সন্তানসহ মা নিখোঁজের তিনদিনের মাথায় মায়ের পর মেয়ে শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।উদ্ধার হওয়া ওই শিশু কন্যার নাম জবা রাণী দাস (৭)। জবা উপজেলার রথীন্দ্র দাসের মেয়ে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় ভেসে যাওয়া মরদেহটি ছায়ার হাওরের হুনাকান্দা নামক স্থানে লোকজন দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়।পরে খবর পেয়ে শাল্লা থানা পুলিশ রথীন্দ্র দাসকে সঙ্গে নিয়ে জবা রাণী দাসের মরদেহটি শনাক্ত করে। তবে নিখোঁজ বিজয় দাসের (৫) এখনও খোঁজ পাওয়া যায়নি।

গত ১৯ জুন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শাল্লা ব্রিজ সংলগ্ন বাহাড়া শাসখাই রাস্তা থেকে ব্রিজে ওঠার সময় স্রোতের টানে দাঁড়াইন নদীতে ডুবে যায় মা দুর্লভ রানী ও তার দুই শিশু সন্তান জবা রাণী দাস ও বিজয় দাস। গত ২০ জুন রথীন্দ্র দাসের স্ত্রী দুর্লভ রানী দাসের মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

শাল্লা থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, ছায়ার হাওরের খালিয়াজুড়ি সীমানা থেকে জবা রাণীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ছেলে বিজয় দাসের সন্ধান এখনও পাওয়া যায়নি।

সূত্র-সি.টুডে

ট্যাগ:
লেখক সম্পর্কে

জনপ্রিয়

শাল্লায় স্রোতে ভেসে যাওয়া মায়ের পর মিলল মেয়ের লাশ, এখনও নিখোঁজ ছেলে

প্রকাশের সময়: ১১:২৭:৩২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ জুন ২০২৩

সুনামগঞ্জের শাল্লায় গত ১৯ জুন নদীর স্রোতে ভেসে যাওয়া দুই শিশু সন্তানসহ মা নিখোঁজের তিনদিনের মাথায় মায়ের পর মেয়ে শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।উদ্ধার হওয়া ওই শিশু কন্যার নাম জবা রাণী দাস (৭)। জবা উপজেলার রথীন্দ্র দাসের মেয়ে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় ভেসে যাওয়া মরদেহটি ছায়ার হাওরের হুনাকান্দা নামক স্থানে লোকজন দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়।পরে খবর পেয়ে শাল্লা থানা পুলিশ রথীন্দ্র দাসকে সঙ্গে নিয়ে জবা রাণী দাসের মরদেহটি শনাক্ত করে। তবে নিখোঁজ বিজয় দাসের (৫) এখনও খোঁজ পাওয়া যায়নি।

গত ১৯ জুন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শাল্লা ব্রিজ সংলগ্ন বাহাড়া শাসখাই রাস্তা থেকে ব্রিজে ওঠার সময় স্রোতের টানে দাঁড়াইন নদীতে ডুবে যায় মা দুর্লভ রানী ও তার দুই শিশু সন্তান জবা রাণী দাস ও বিজয় দাস। গত ২০ জুন রথীন্দ্র দাসের স্ত্রী দুর্লভ রানী দাসের মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

শাল্লা থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, ছায়ার হাওরের খালিয়াজুড়ি সীমানা থেকে জবা রাণীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ছেলে বিজয় দাসের সন্ধান এখনও পাওয়া যায়নি।

সূত্র-সি.টুডে