লন্ডন ১২:৪১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দিরাইয়ে পিআইসি গঠনের লক্ষ্যে গণশুনানি

  • কালনী ভিউ
  • প্রকাশের সময়: ০২:৩২:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ ডিসেম্বর ২০২৩
  • ৫১৬

দিরাইয়ে ২০২৩-২৪ অর্থ বছরে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতাধীন উপজেলার বিভিন্ন হাওর রক্ষা বাঁধের ভাঙ্গন বন্ধ ও মেরামত করণে পিআইসি গঠনের লক্ষ্যে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও কৃষকদের উপস্থিতিতে গণশুনানী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (২ ডিসেম্বর) দিনব্যাপী উপজেলার কুলঞ্জ, জগদল, তাড়ল ও করিমপুর ইউনিয়নে প্রকৃত কৃষকদের নিয়ে পিআইসি গঠন করার লক্ষ্যে গণশুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

পৃথক গণশুনানিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কাবিটা বাস্তবায়ন ও মনিটরিং কমিটির সভাপতি মাহমুদুর রহমান মামুন।

উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও শাখা কর্মকর্তা এটিএম মোনায়েম হোসেন’র পরিচালনায় গণশুনানিতে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এড. রিপা সিনহা, জগদল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হুমায়ুন রশিদ লাভলু, কুলঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান একরার হোসেন, তাড়ল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী আহমদ, করিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান সাজ্জাদ সর্দারসহ ইউপি সদস্যবৃন্দ ও স্থানীয় কৃষকরা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কাবিটা বাস্তবায়ন ও মনিটরিং কমিটির সভাপতি মাহমুদুর রহমান মামুন বলেন, নীতিমালা অনুযায়ী গণশুনানির মাধ্যমে এলাকার প্রকৃত কৃষক, শিক্ষক ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের দিয়ে হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ মেরামত ও সংস্কার কাজের কমিটি গঠন করা হবে। বাঁধের কাজে কোনো অনিয়ম সহ্য করা হবে না। সকল পিআইসিকে সরকারের বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে বাঁধের কাজ শেষ করতে হবে। কোনো অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ পেলে তাৎক্ষণিক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাউবো সূত্রে জানা যায়, ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরে উপজেলায় ১০৭ টি পিআইসির মাধ্যমে হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ মেরামতের কাজ করা হবে।

ট্যাগ:
লেখক সম্পর্কে

দিরাইয়ে পিআইসি গঠনের লক্ষ্যে গণশুনানি

প্রকাশের সময়: ০২:৩২:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ ডিসেম্বর ২০২৩

দিরাইয়ে ২০২৩-২৪ অর্থ বছরে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতাধীন উপজেলার বিভিন্ন হাওর রক্ষা বাঁধের ভাঙ্গন বন্ধ ও মেরামত করণে পিআইসি গঠনের লক্ষ্যে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও কৃষকদের উপস্থিতিতে গণশুনানী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (২ ডিসেম্বর) দিনব্যাপী উপজেলার কুলঞ্জ, জগদল, তাড়ল ও করিমপুর ইউনিয়নে প্রকৃত কৃষকদের নিয়ে পিআইসি গঠন করার লক্ষ্যে গণশুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

পৃথক গণশুনানিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কাবিটা বাস্তবায়ন ও মনিটরিং কমিটির সভাপতি মাহমুদুর রহমান মামুন।

উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও শাখা কর্মকর্তা এটিএম মোনায়েম হোসেন’র পরিচালনায় গণশুনানিতে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এড. রিপা সিনহা, জগদল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হুমায়ুন রশিদ লাভলু, কুলঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান একরার হোসেন, তাড়ল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী আহমদ, করিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান সাজ্জাদ সর্দারসহ ইউপি সদস্যবৃন্দ ও স্থানীয় কৃষকরা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কাবিটা বাস্তবায়ন ও মনিটরিং কমিটির সভাপতি মাহমুদুর রহমান মামুন বলেন, নীতিমালা অনুযায়ী গণশুনানির মাধ্যমে এলাকার প্রকৃত কৃষক, শিক্ষক ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের দিয়ে হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ মেরামত ও সংস্কার কাজের কমিটি গঠন করা হবে। বাঁধের কাজে কোনো অনিয়ম সহ্য করা হবে না। সকল পিআইসিকে সরকারের বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে বাঁধের কাজ শেষ করতে হবে। কোনো অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ পেলে তাৎক্ষণিক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাউবো সূত্রে জানা যায়, ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরে উপজেলায় ১০৭ টি পিআইসির মাধ্যমে হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ মেরামতের কাজ করা হবে।