লন্ডন ০৯:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে ‘আগ্রহ নেই’ ইইউ প্রাক-নির্বাচন পর্যবেক্ষক দলের

বাংলাদেশে আগামী জাতীয় নির্বাচন কেমন হবে, ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের (ইএমএফ) কাছে তা জানতে চেয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) প্রাক-নির্বাচন পর্যবেক্ষক দল। তবে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ইস্যুতে তাদের কোনো আগ্রহ নেই বলে মনে করছেন ইএমএফ সদস্যরা।

মঙ্গলবার (১১ জুলাই) সকালে রাজধানীর গুলশানে ইইউ দূতাবাসে ঢাকায় সফররত ইইউর প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দলের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ইএমএফ সদস্যরা। এতে অংশ নেন ইএমএফের চার সদস্য। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মদ আবেদ আলী বলেন, আগামী নির্বাচন কেমন হবে তা জানতে চেয়েছেন ইইউ প্রতিনিধিরা।তিনি বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধি দলের কোনো আগ্রহ নেই।তিনি বলেন, ১৯৯৬ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত সকল জাতীয় নির্বাচনের বিষয়ে কথা হয়েছে এই বৈঠকে। ইইউ একটি অংশগ্রহণমূলক ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় বলেও জানান অধ্যাপক আবেদ আলী।নির্বাচন কমিশনের আমন্ত্রণে ১৫ দিনের বাংলাদেশ সফরে সরকারের বেশ কয়েকটি মন্ত্রণালয় এবং দপ্তরের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠকের কথা রয়েছে ইইউর প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দলটির।

এর মধ্যে কয়েক দফা বৈঠক হতে পারে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে। দলটি মতবিনিময় করবে রাজনৈতিক দল, সুশীল সমাজ এবং দেশীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষক গোষ্ঠীর সঙ্গেও।অগ্রগামী এ দলটির প্রতিবেদনের ওপরই নির্ধারিত হবে বাংলাদেশে আগামী জাতীয় নির্বাচনে ইউরোপীয় ইউনিয়ন পর্যবেক্ষক পাঠাবে কি না।

এরআগে, সোমবার (১০ জুলাই) আওয়ামী লীগ প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক করেছে ইইউ‍র প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দল। তবে এতে নির্বাচন ইস্যু নিয়ে কোনো কথা হয়নি জানিয়ে দলটির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক সম্পাদক বলেছেন, “দেশের নির্বাচন নিয়ে বিদেশিদের সঙ্গে আলোচনা শোভনীয় নয়।”ইইউ প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দলটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন রিকার্ডো শোলেরি। এরই মধ্যে বেশকিছু বৈঠক করেছে দলটি। আগামী ২৩ জুলাই তাদের ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে।

ট্যাগ:
লেখক সম্পর্কে

জনপ্রিয়

তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে ‘আগ্রহ নেই’ ইইউ প্রাক-নির্বাচন পর্যবেক্ষক দলের

প্রকাশের সময়: ০৯:০২:২২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুলাই ২০২৩

বাংলাদেশে আগামী জাতীয় নির্বাচন কেমন হবে, ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের (ইএমএফ) কাছে তা জানতে চেয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) প্রাক-নির্বাচন পর্যবেক্ষক দল। তবে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ইস্যুতে তাদের কোনো আগ্রহ নেই বলে মনে করছেন ইএমএফ সদস্যরা।

মঙ্গলবার (১১ জুলাই) সকালে রাজধানীর গুলশানে ইইউ দূতাবাসে ঢাকায় সফররত ইইউর প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দলের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ইএমএফ সদস্যরা। এতে অংশ নেন ইএমএফের চার সদস্য। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মদ আবেদ আলী বলেন, আগামী নির্বাচন কেমন হবে তা জানতে চেয়েছেন ইইউ প্রতিনিধিরা।তিনি বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধি দলের কোনো আগ্রহ নেই।তিনি বলেন, ১৯৯৬ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত সকল জাতীয় নির্বাচনের বিষয়ে কথা হয়েছে এই বৈঠকে। ইইউ একটি অংশগ্রহণমূলক ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় বলেও জানান অধ্যাপক আবেদ আলী।নির্বাচন কমিশনের আমন্ত্রণে ১৫ দিনের বাংলাদেশ সফরে সরকারের বেশ কয়েকটি মন্ত্রণালয় এবং দপ্তরের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠকের কথা রয়েছে ইইউর প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দলটির।

এর মধ্যে কয়েক দফা বৈঠক হতে পারে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে। দলটি মতবিনিময় করবে রাজনৈতিক দল, সুশীল সমাজ এবং দেশীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষক গোষ্ঠীর সঙ্গেও।অগ্রগামী এ দলটির প্রতিবেদনের ওপরই নির্ধারিত হবে বাংলাদেশে আগামী জাতীয় নির্বাচনে ইউরোপীয় ইউনিয়ন পর্যবেক্ষক পাঠাবে কি না।

এরআগে, সোমবার (১০ জুলাই) আওয়ামী লীগ প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক করেছে ইইউ‍র প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দল। তবে এতে নির্বাচন ইস্যু নিয়ে কোনো কথা হয়নি জানিয়ে দলটির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক সম্পাদক বলেছেন, “দেশের নির্বাচন নিয়ে বিদেশিদের সঙ্গে আলোচনা শোভনীয় নয়।”ইইউ প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দলটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন রিকার্ডো শোলেরি। এরই মধ্যে বেশকিছু বৈঠক করেছে দলটি। আগামী ২৩ জুলাই তাদের ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে।