লন্ডন ০৭:০৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দিরাইয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

  • কালনী ভিউ
  • প্রকাশের সময়: ১২:৫০:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • ৫৩৫

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম জুয়েল’র বিরুদ্ধে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার দুপুরে দিরাই পৌর শহরের থানাপয়েন্টে অনিয়ম দূর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার প্রতিবাদে ইউনিয়ন বাসীর ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শফিক মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ইউপি সদস্য সাঈদ আহমদ খসরু, সাবেক ইউপি সদস্য হাসান মিয়া, মাসুক মিয়া সওদাগর, রায়হান হাবিব চৌধুরী, জুলফর মিয়া, আরিজা বেগম, শিপ্রা রাণী দাস প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান জুয়েল নির্বাচিত হওয়ার পর পরই তিনি ইউনিয়ন পরিষদকে নিজের সম্পত্তি মনে করেছেন। তিনি পরিষদের নির্বাচিত সদস্যদের সাথে বার বার অশোভন আচরণ করে আসছেন। তাদের মতামত উপক্ষো ও কিছু সদস্যকে বাড়তি সুবিধা দিয়ে অন্যদেরকে বিভিন্নভাবে বঞ্চিত করছেন। তারা আরও বলেন, ইউনিয়নের ভেতরে ব্যবসা করা কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। ব্যবসায়ীরা লাইসেন্স করতে গেলে তিনি বাড়তি টাকা দাবি করে বসেন। অন্যথায় লাইসেন্স দিতে অপারগতা কিংবা নানা বাহানা খুঁজেন। এ কারণে ইউনিয়ন পরিষদের পরিষেবা মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে এবং পরস্পরের মধ্যে বিরোধ তৈরি হচ্ছে। এসব অনিয়মের বিরুদ্ধে সরকারের স্থানীয় পর্যায়সহ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা।

ট্যাগ:
লেখক সম্পর্কে

জনপ্রিয়

দিরাইয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

প্রকাশের সময়: ১২:৫০:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম জুয়েল’র বিরুদ্ধে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার দুপুরে দিরাই পৌর শহরের থানাপয়েন্টে অনিয়ম দূর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার প্রতিবাদে ইউনিয়ন বাসীর ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শফিক মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ইউপি সদস্য সাঈদ আহমদ খসরু, সাবেক ইউপি সদস্য হাসান মিয়া, মাসুক মিয়া সওদাগর, রায়হান হাবিব চৌধুরী, জুলফর মিয়া, আরিজা বেগম, শিপ্রা রাণী দাস প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান জুয়েল নির্বাচিত হওয়ার পর পরই তিনি ইউনিয়ন পরিষদকে নিজের সম্পত্তি মনে করেছেন। তিনি পরিষদের নির্বাচিত সদস্যদের সাথে বার বার অশোভন আচরণ করে আসছেন। তাদের মতামত উপক্ষো ও কিছু সদস্যকে বাড়তি সুবিধা দিয়ে অন্যদেরকে বিভিন্নভাবে বঞ্চিত করছেন। তারা আরও বলেন, ইউনিয়নের ভেতরে ব্যবসা করা কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। ব্যবসায়ীরা লাইসেন্স করতে গেলে তিনি বাড়তি টাকা দাবি করে বসেন। অন্যথায় লাইসেন্স দিতে অপারগতা কিংবা নানা বাহানা খুঁজেন। এ কারণে ইউনিয়ন পরিষদের পরিষেবা মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে এবং পরস্পরের মধ্যে বিরোধ তৈরি হচ্ছে। এসব অনিয়মের বিরুদ্ধে সরকারের স্থানীয় পর্যায়সহ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা।