লন্ডন ০৮:৫৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

হবিগঞ্জে স্বামীর পুরুষাঙ্গ দ্বিখণ্ডিত, স্ত্রী ও শাশুড়ি গ্রেপ্তার

বিগঞ্জের মাধবপুরে স্বামীর বিশেষ অঙ্গ দ্বিখণ্ডিত করার ঘটনায় স্ত্রী ও শাশুড়িকে পুলিশ গাজীপুর থেকে গ্রেপ্তার করছে পুলিশ। গ্রেপ্তার স্ত্রী জোনাকি বেগম ও শাশুড়ি বকুল বেগমকে বৃহস্পতিবার দুপুরে মাধবপুর থানায় নিয়ে আসা হয়।

মাধবপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আতিকুর রহমান জানান, ১৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় স্ত্রী জোনাকী বেগম ও তার সহযোগীরা জুসের সঙ্গে চেতনানাশক কিছু মিশিয়ে স্বামী হাবিব মিয়াকে খাওয়ান। পরে তন্দ্রারত অবস্থায় ধারালো ছুরি দিয়ে তার পুরুষাঙ্গ দ্বিখণ্ডিত করেন। চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা হাবিবকে উদ্ধার করেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে অস্ত্রোপচারের পর এখন তিনি ঢাকার একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন।

হাবিব মিয়া পার্শ্ববর্তী বিজয়নগর উপজেলার শশই গ্রামের রাষ্টু মিয়ার ছেলে। নজরপুর গ্রামে বসবাসরত জোনাকীর সঙ্গে হাবিবের দ্বিতীয় বিয়ে হয়। কিছু দিন যেতে না যেতেই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিরোধ শুরু হয়। বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

এ ঘটনায় হাবিবের পিতা রাষ্টু মিয়া বাদী হয়ে জোনাকী ও তার মাসহ কয়েকজনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করেন। ঘটনার পর থেকে জোনাকী ও তার মা বকুল বেগম আত্মগোপনে চলে যান। তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় গাজীপুর মেট্রোপলিটন কাশিমপুর থানা পুলিশের সহযোগিতায় এসআই রায়হান বৃহস্পতিবার ভোররাতে গাজীপুর মেট্রোপলিটন এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করেন।
সূত্র- সি টু

ট্যাগ:
লেখক সম্পর্কে

হবিগঞ্জে স্বামীর পুরুষাঙ্গ দ্বিখণ্ডিত, স্ত্রী ও শাশুড়ি গ্রেপ্তার

প্রকাশের সময়: ১১:৫২:৪৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৩ অক্টোবর ২০২৩

বিগঞ্জের মাধবপুরে স্বামীর বিশেষ অঙ্গ দ্বিখণ্ডিত করার ঘটনায় স্ত্রী ও শাশুড়িকে পুলিশ গাজীপুর থেকে গ্রেপ্তার করছে পুলিশ। গ্রেপ্তার স্ত্রী জোনাকি বেগম ও শাশুড়ি বকুল বেগমকে বৃহস্পতিবার দুপুরে মাধবপুর থানায় নিয়ে আসা হয়।

মাধবপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আতিকুর রহমান জানান, ১৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় স্ত্রী জোনাকী বেগম ও তার সহযোগীরা জুসের সঙ্গে চেতনানাশক কিছু মিশিয়ে স্বামী হাবিব মিয়াকে খাওয়ান। পরে তন্দ্রারত অবস্থায় ধারালো ছুরি দিয়ে তার পুরুষাঙ্গ দ্বিখণ্ডিত করেন। চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা হাবিবকে উদ্ধার করেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে অস্ত্রোপচারের পর এখন তিনি ঢাকার একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন।

হাবিব মিয়া পার্শ্ববর্তী বিজয়নগর উপজেলার শশই গ্রামের রাষ্টু মিয়ার ছেলে। নজরপুর গ্রামে বসবাসরত জোনাকীর সঙ্গে হাবিবের দ্বিতীয় বিয়ে হয়। কিছু দিন যেতে না যেতেই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিরোধ শুরু হয়। বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

এ ঘটনায় হাবিবের পিতা রাষ্টু মিয়া বাদী হয়ে জোনাকী ও তার মাসহ কয়েকজনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করেন। ঘটনার পর থেকে জোনাকী ও তার মা বকুল বেগম আত্মগোপনে চলে যান। তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় গাজীপুর মেট্রোপলিটন কাশিমপুর থানা পুলিশের সহযোগিতায় এসআই রায়হান বৃহস্পতিবার ভোররাতে গাজীপুর মেট্রোপলিটন এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করেন।
সূত্র- সি টু