লন্ডন ০৮:১৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দিরাইয়ে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে বিশাল শোডাউন

  • কালনী ভিউ
  • প্রকাশের সময়: ০৫:০১:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০২৩
  • ৫২৬

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পাওয়ায় বিশাল শোডাউনের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ (আল আমিন চৌধুরী) কে আনুষ্ঠানিকভাবে বরণ করে নিলেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) বিকেলে আল আমিন চৌধুরীকে দিরাই-মদনপুর সড়ক থেকে শোভাযাত্রার মধ্যদিয়ে দিরাইয়ে নিয়ে আসা হয়। এ উপলক্ষ্যে দিরাই লঞ্চঘাটস্থ উপজেলা আওয়ামী লীগের অস্থায়ী কার্যালয়ে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট সোহেল আহমদের সভাপতিত্বে ও পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল মিয়ার পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ আল আমিন চৌধুরী।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগ নেতা সাদ উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রঞ্জন কুমার রায়, জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য জাহাঙ্গীর চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোহন মিয়া চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান মিফতা চৌধুরী, হুমায়ুন রশীদ লাভলু, একরার হোসেন, জহিরুল ইসলাম জুয়েল, কৃষক লীগের আহ্বায়ক তাজুল ইসলাম, জেলা পরিষদের সদস্য রায়হান মিয়াসহ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সভায় বক্তারা আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ আল আমিন চৌধুরীকে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ভাটি অঞ্চলের শহর সুনামগঞ্জের দিরাই-শাল্লা নানা কারণে উন্নয়ন বঞ্চিত ছিল। দেশে যখন চলছে উন্নয়নের জোয়ার, তখন দিরাই-শাল্লায় নির্বাচিত জনপ্রতিনিধির একটি সিন্ডিকেট বাহিনী দুর্নীতিতে নিমজ্জিত ছিল। তারা সব সময়ই নিজের পকেট ভারী করতে ব্যস্ত থাকায় এ দু’উপজেলার সাধারণ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে কোন উদ্যোগ গ্রহণ করেনি। বক্তারা আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এ সাহসী ভূমিকায় পরিবারতন্ত্র থেকে সুনামগঞ্জ-২ মুক্তি পেয়েছে। এবার উন্নয়নের জোয়ারে দিরাই-শাল্লা ভরপুর হবে। মানুষের আশা-আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটবে। তাই আগামি ৩০শে নভেম্বর মনোনয়ন দাখিলের মাধ্যমে নৌকার বিজয় না হওয়া পর্যন্ত সকল নেতাকর্মীকে মাঠে থাকতে হবে। আগামী ৭ জানুয়ারি নির্বাচনের দিন সকল ভোটারকে কেন্দ্রে নিয়ে এসে স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ ভোটগ্রহণের পরিবেশ তৈরিতে সকলকে ভূমিকা রাখতে হবে।

বিশাল শোডাউনটি দিরাই পৌর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে লঞ্চঘাটস্থ অস্থায়ী কার্যালয়ে এসে মতবিনিময় সভায় মিলিত হয়।

ট্যাগ:
লেখক সম্পর্কে

দিরাইয়ে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে বিশাল শোডাউন

প্রকাশের সময়: ০৫:০১:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০২৩

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পাওয়ায় বিশাল শোডাউনের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ (আল আমিন চৌধুরী) কে আনুষ্ঠানিকভাবে বরণ করে নিলেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) বিকেলে আল আমিন চৌধুরীকে দিরাই-মদনপুর সড়ক থেকে শোভাযাত্রার মধ্যদিয়ে দিরাইয়ে নিয়ে আসা হয়। এ উপলক্ষ্যে দিরাই লঞ্চঘাটস্থ উপজেলা আওয়ামী লীগের অস্থায়ী কার্যালয়ে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট সোহেল আহমদের সভাপতিত্বে ও পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল মিয়ার পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ আল আমিন চৌধুরী।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগ নেতা সাদ উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রঞ্জন কুমার রায়, জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য জাহাঙ্গীর চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোহন মিয়া চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান মিফতা চৌধুরী, হুমায়ুন রশীদ লাভলু, একরার হোসেন, জহিরুল ইসলাম জুয়েল, কৃষক লীগের আহ্বায়ক তাজুল ইসলাম, জেলা পরিষদের সদস্য রায়হান মিয়াসহ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সভায় বক্তারা আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ আল আমিন চৌধুরীকে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ভাটি অঞ্চলের শহর সুনামগঞ্জের দিরাই-শাল্লা নানা কারণে উন্নয়ন বঞ্চিত ছিল। দেশে যখন চলছে উন্নয়নের জোয়ার, তখন দিরাই-শাল্লায় নির্বাচিত জনপ্রতিনিধির একটি সিন্ডিকেট বাহিনী দুর্নীতিতে নিমজ্জিত ছিল। তারা সব সময়ই নিজের পকেট ভারী করতে ব্যস্ত থাকায় এ দু’উপজেলার সাধারণ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে কোন উদ্যোগ গ্রহণ করেনি। বক্তারা আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এ সাহসী ভূমিকায় পরিবারতন্ত্র থেকে সুনামগঞ্জ-২ মুক্তি পেয়েছে। এবার উন্নয়নের জোয়ারে দিরাই-শাল্লা ভরপুর হবে। মানুষের আশা-আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটবে। তাই আগামি ৩০শে নভেম্বর মনোনয়ন দাখিলের মাধ্যমে নৌকার বিজয় না হওয়া পর্যন্ত সকল নেতাকর্মীকে মাঠে থাকতে হবে। আগামী ৭ জানুয়ারি নির্বাচনের দিন সকল ভোটারকে কেন্দ্রে নিয়ে এসে স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ ভোটগ্রহণের পরিবেশ তৈরিতে সকলকে ভূমিকা রাখতে হবে।

বিশাল শোডাউনটি দিরাই পৌর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে লঞ্চঘাটস্থ অস্থায়ী কার্যালয়ে এসে মতবিনিময় সভায় মিলিত হয়।